স্বা’মী-স্ত্রী একের অন্যের কাছে ঘনিষ্ট হওয়ার জন্য এটা অনেকটা গুরুত্বপূর্ণ। বিয়ের পর প্রথমবারের মত মি’লন করতে আপনাকে কিছু বি’ষয় আপনাকে অবশ্যই লক্ষ্য রাখতে হবে।

আর যৌ’নতা নিয়ে মানুষের মধ্যে অনেক কৌতূহল থাকে৷ থাকবে নাই বা কেন? বরাবরই যা কিছু গো’পন, তা জানার আকাঙ্ক্ষা মানুষের তীব্র৷ যৌ’নতাও তাই বরাবর আকর্ষণ করে মানুষকে৷

শুধু যাঁরা প্রথমবার যৌ’ন স’ম্পর্কে জড়াবেন, তাঁদের কিছু ত’থ্য অবশ্যই জানা উচিত৷ এই টিপস্ তাঁদের প্রথমবারের অ’ভিজ্ঞতাকে আরও স্মরণীয় করে তুলবে

১. যৌ’নতা নিয়ে অহেতুক ঘাবড়াবেন না৷ অকারণ ভীতি, বা অতিরিক্ত উৎসাহ কোনওটাই ভাল নয়৷ অকারণ চিন্তা দূরে রাখু’ন এবং যৌ’নতার উপভোগ করুন৷

২. প্রথমবারের অ’ভিজ্ঞতাকে আরও সুন্দর করে তুলতে নিজের মধ্যে দুষ্টুমিটা ধরে রাখু’ন৷ আপনার হিউমার আপনার পার্টনারকে সেই বিশেষ সময়ে অনেক দেবে৷

৩. সে’ক্স করার সময় অহেতুক পর্নোগ্রাফি দেখে নিজেদের উ’ত্তেজিত করার চেষ্টা করবেন না৷ নিজেদের বুঝুন৷ নিজেদের সান্নিধ্য উপভোগ করুন৷ তবেই যৌ’নতার আসল মহিমা টের পাবেন৷ নীল ছবির অতিরঞ্জিত দৃশ্য আপনার আশা অতিরিক্ত বাড়িয়ে দিতে পারে অনেক সময়, যা আপনার প্রকৃত সুখের পথে অন্তরায়৷

৪. সিনেমার মতো বা পর্নোগ্রাফির মতো নিজেদের যৌ’নতা নাও হতে পারে, এটা মনে রেখে তারপরই সে’ক্স করুন৷ বাস্তব জগৎ এবং সিনেমা যে এক নয়, তা বুঝতে হবে আপনাকেই৷

৫. একটু রিল্যাক্স করুন রতি ক্রিয়ার সময়৷ মাথায় একগুচ্ছ চিন্তা নিয়ে বিছানায় গেলে, জীবনের সমস্যার সমাধান যেমন মিলবে না, তেমনই পাবেন না রতিসুখ৷ তাই সারাদিনের টেনশনকে বিদায় দিয়ে তারপরেই বিছানায় যান৷

৬. মনের মানুষটিকে আদর করার পরিবেশ তৈরি করুন৷ নোং’রা বিছানা বা তেলচিটে বালিশ, আর তার ও’পরেই আপনারা লীলা খেলা করবেন, এমন যেন কখনওই না হয়৷ পরিষ্কার ঘর, টিমটিমে আলো, মিষ্টি কোনও রোমান্টিক গান এসব কিন্তু ঘনিষ্ট মুহূর্ত তৈরি করার কাজে খুবই উপযোগী৷

৭. প্রথমবার বিছানায় যাওয়ার আগে একবার নিজের কোনও ডাক্তার বন্ধুর পরামর্শ অবশ্যই নিন৷ এমন হতে পারে, আপনি যৌ’নতার পরবর্তী প্রভাব স’ম্পর্কে সঠিক ওয়াকিবহাল নন৷ তাই আগে সমস্ত ব্যাপার সঠিক ভাবে জেনে তারপরই নিশ্চিন্তে যৌ’নতায় মশগুল হন৷

৮. স’ম্পর্ক আর মুহুর্তদের গুরুত্ব নিয়ে প্যাশনেট হন, সে’ক্স নিয়ে নয়৷ মুহূর্ত সুন্দর হলে তবেই আসবে রতিক্রিয়ায় স্বর্গসুখ৷ নাহলে বাকি সবকিছুর স্বাদ আধসেদ্ধ মাংসের মতো হয়ে যাবে৷

৯. যৌ’নতা নিয়ে কৌতূহলী হলে, সেই বি’ষয়ে বিস্তর পড়াশুনা করে দেখতে পারেন৷ কোনও বিদ্যাই খা’রাপ নয়৷

১০. একটা কথা মনে রাখবেন, প্র্যাকটিকাল জীবনে অনেককিছুই মানুষ নতুন অ’ভিজ্ঞতা অর্জন করেন৷ যা আগে থেকে জেনে রাখা যায় না৷ তাই সবকিছুর জন্যই তৈরি থাকুন৷ চ’রম মুহূর্তে যে কী হয়, কেউ বলতে পারেন না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here