দাঁতের ব্যাথাকে আমরা অনেকে আমল দেই না। প্রয়োজনমতো দাঁতের যত্ন নেই না, ডেন্টিস্টের কাছে যাই না নিয়মিত। এর পর যখন দাঁতের ব্য’থায় প্রা’ণ ওষ্ঠাগত হয় তখনই কেবল ডেন্টিস্টের কাছে দৌড়াই।

কিন্তু দাঁত ব্য’থার রয়েছে বড়ই বাজে একটা অভ্যাস। রাতের বেলায় যখন সবাই ঘুমিয়ে পড়েছে, ডেন্টিস্ট যখন চেম্বার বন্ধ করে বাড়ি চলে গেছে তখনই দাঁত ব্য’থা চ’রম আকৃতি ধারণ করে। তখন সকাল পর্যন্ত ব্য’থা সহ্য করা ছাড়া উপায় থাকে না। আর এই শীতে তো দাঁতের ব্য’থা বেড়েও যায় অনেক গুণে।

দাঁতে ব্য’থা হলে ডেন্টিস্ট দেখাতে হবে অবশ্যই, কিন্তু তার আগ পর্যন্ত ব্য’থা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য এই ঘরোয়া ও’ষুধগুলো কাজ করে জাদুর মতো!

১) লবণ পানি

একেবারে সাধারণ এবং প্রচলিত এই প্রক্রিয়া আসলেই কার্যকর। এক গ্লাস গরম পানিতে বেশি করে লবণ গুলে কুলকুচি করুন যতক্ষণ সম্ভব। দাঁতের ব্য’থার কারন হিসেবে যদি কোনও জী’বাণু থেকে থাকে তবে তা দূর হবে।

এছাড়াও মাড়িতে র’ক্ত চলাচল ভালো করে দেয় এবং সাময়িকভাবে দাঁত ব্যাথা কমে আসে। তবে এই লবণ পানি খেয়ে ফেলবেন না যেন। কুলকুচি করে ফে’লে দেবেন।

২) লবঙ্গ

যে দাঁতটা ব্য’থা করছে, তার ও’পরে বা পাশে (যেখানে ব্যাথা) একটা লবঙ্গ রেখে দিন। মাড়ি আর দাঁতের মাঝে বা দুই চোয়ালের মাঝে এই লবঙ্গ চে’পে রাখতে পারেন যতক্ষণ না ব্য’থা চলে যায়। লবঙ্গের তেল ব্যবহার করতে পারেন তবে দুই-এক ফোঁটার বেশি নয়। লবঙ্গ গুঁড়োর সাথে পানি বা অলিভ অয়েল মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করেও লাগাতে পারেন।

৩) আদা

এক টুকরো আদা কে’টে নিন এবং যে দাঁতে ব্য’থা করছে সে দাঁত দিয়ে চিবাতে থাকুন। যদি চিবাতে বেশি ব্য’থা লাগে তাহলে অন্য পাশের দাঁত দিয়ে চিবিয়ে যে রস এবং আদার পেস্ট তৈরি হবে সেটা ওই আ’ক্রান্ত দাঁতের কাছে নিয়ে যান। জিহ্বা দিয়ে একটু চে’পে রাখু’ন দাঁতের কাছে। কিছুক্ষণের মাঝেই ব্য’থা চলে যাবে।

৪) রসুন

এক কোয়া রসুন থেঁতো করে নিয়ে দাঁতের ও’পর লাগিয়ে রাখু’ন। রসুনের সাথে একটু লবণও মিশিয়ে লাগাতে পারেন।

৫) পেঁয়াজ

টাটকা এবং রসালো এক টুকরো পেঁয়াজ কে’টে নিয়ে সেটা আ’ক্রান্ত দাঁতের ও’পর চে’পে রাখু’ন। পেয়াজের রসটা উপকারে আসবে।

৬) মরিচ

হ্যাঁ মরিচ। শুকনো মরিচের গুঁড়ো দিয়ে পেস্ট তৈরি করে দাঁতের ও’পরে দিতে পারেন। এক্ষেত্রে মরিচের ভে’তরে থাকা উপাদান আপনার দাঁতের ওই ব্যাথাকে অবশ করে দেবে। গোলমরিচের গুঁড়োও ব্যবহার করতে পারেন।

৭) বেকিং সোডা

একটা কটন বাড একটু পানিতে ভিজিয়ে নিন। এর মাথায় অনেকটা বেকিং সোডা লাগিয়ে নিয়ে আ’ক্রান্ত দাঁতের ও’পরে প্রয়োগ করুন। আরেক ভাবেও বেকিং সোডা ব্যবহার করা যায়। এক চামচ বেকিং সোডা এক গ্লাস গরম পানিতে গু’লিয়ে সেটা দিয়ে কুলকুচি করে ফেলুন।

মনে রাখবেনঃ-

আপনার দাঁত ব্য’থা করছে তার মানে নিশ্চয়ই দাঁতের ভে’তরে কোনো সমস্যা আছে এবং অবশ্যই ডেন্টিস্টের সাহায্য ছাড়া সে সমস্যার থেকে মুক্ত হওয়া যাবে না।

ঘরোয়া এই প্রতিকারগুলো আপনাকে কিছুটা সময়ের জন্য ব্য’থা থেকে মুক্তি দিচ্ছে বলেই ডাক্তার দেখানোর কথাটা ভু’লে যাবেন না যেন। বিশেষ করে যদি মাড়ি ফুলে যায় তবে বুঝতে হবে ইনফেকশন হয়ে গেছে এবং অতি সত্তর ডেন্টিস্টের সাথে দেখা করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here