শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর একটি হাসপাতালে মৃ’ত্যুবরণ করেন হেফাজতে ইসলামের আমির ও প্রতিষ্ঠাতা আল্লামা আহম’দ শফী।

দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত স’মস্যা ও ডায়াবেটিস সহ নানা শা’রীরিক স’মস্যায় ভোগার পর বৃহস্পতিবার তিনি অ’সুস্থ হয়ে পড়লে প্রথমে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ এবং সেখানে অবস্থার অ’বনতি হলে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে ঢাকায় আনলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মা’রা যন তিনি।

গত বুধবার থেকে চলা হাটহাজারী মাদ্রাসায় ছাত্রদের বি’ক্ষো’ভের মুখে বৃহস্পতিবার মহাপরিচালকের পদ থেকে সরে দাড়ান আল্লামা শফী।

মাদ্রাসার কর্তৃত্ব নিয়ে দুই পক্ষের এই দ্ব’ন্দ্বের কারনে বরখাস্ত করা হয় শফীপুত্র আনাস মাদানিকেও। আল্লামা শফীর মৃ’ত্যর পর তার পুত্র আনাস মাদানি গণমাধ্যমকে জানান ডাক্তাররা তাকে ফোন করে জানিয়েছিলেন অতিরিক্ত টেনশনের কারনেই তার বাবা হা’র্ট ফেল করেন।

তার ভাষ্য, ‘’আমার আব্বা দীর্ঘদিন রো’গে ভুগলেও ভালোর দিকে ছিলেন। গতকাল (বৃহস্পতিবার) অনাকাঙ্ক্ষিত ঘ’টনার কারণে আব্বাজান হঠাৎ করে অ’সুস্থ হয়ে গেলেন ও উনাকে চট্টগ্রাম মেডিকেলে নেয়া হয়।

সেখানকার ডাক্তাররা আমাকে ফোন দিয়ে বলেছেন আব্বা টেনশনের কারণে হা’র্ট ফেল করেছিলেন। সেজন্যই আজ এ অবস্থা।‘’

হাটহাজারী মাদ্রসার প্রস’ঙ্গে তার কাছে জানতে চাইলে তিনি সে ব্যাপারে কিছু বলতে চান নি। ‘’এ অবস্থায় ভারাক্রান্ত হৃদয় নিয়ে ওই কথাগুলো আমি কিছু বলতে চাইনা।‘’

প্রস’ঙ্গত, সকাল ৯টার দিকে আল্লামা শফীর মৃ’তদে’হ নিয়ে যাওয়া হয়েছে হাটহাজারীর কওমি মাদ্রাসায়। বেলা ২টায় সেখানেই তার জানাজা হবার কথা রয়েছে। এরপর তাকে দাফনও করা হবে সেখানেই।

আল্লামা শফীর জানাজাকে কেন্দ্র করে ভোর থেকেই মানুষের ঢল নেমেছে হাটহাজারিতে। যেকোনো প্রকার উদ্ধত পরিস্থিতি এড়াতে ইতোমধ্যে মোতায়েন করা হয়েছে বিপুল পরিমাণ বিজিবি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here