সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজে’লার নরসিংহপুর ইউনিয়নে এক কি’শোরীকে সংঘবদ্ধ ধ”ণের পর তার পরনের ছালোয়ার নিয়ে যায় এবং জামা ছিঁড়ে ফে’লে স্থানীয় পাঁচ যুবক। মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) বিকেলে আ’দালতে জ’বানব’ন্দি দিয়েছে ওই কি’শোরী।

এ ঘটনায় অ’ভিযুক্ত এক যুবককে গ্রে’প্তার করা হলেও আরও চারজন পলঅতক রয়েছে। গ্রে’ফতার বিল্লাল হোসেনকে জে’লহাজতে পাঠিয়েছেন আ’দালত। পুলিশ তার সাত দিনের রি’মান্ড চাইলে আ’দালত বৃহস্পতিবার রি’মান্ড শুনানির দিন ধার্য করেছেন। বুধবার (২১ অক্টোবর) বিকাল ৫টায় সুনামগঞ্জ জে’লা জজ আ’দালতের দোয়ারাবাজারের বিচারক শ্যাম কান্ত সিনহা এ আদেশ দেন।

শেষের চারজনকে গ্রে’ফতার করতে পারেনি পুলিশ। পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, উপজে’লার নরসিংহপুর ইউনিয়নের ১৬ বছরের ওই কি’শোরী মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে বাথরুমে যাওয়ার জন্য ঘর থেকে বের হলে একই গ্রামের ৫ ব’খাটে যুবক পাশের ধানক্ষেতে নিয়ে তাকে পালাক্রমে ধ”ণ করে। এ সময় তার পরনের ছালোয়ার নিয়ে যায় এবং জামা ছিঁড়ে ফে’লে তারা।

এ ঘটনায় মেয়েটি অ’সুস্থ হয়ে পড়ে। ওই যুবকরা গ্রামের প্রভাবশালী হওয়ায় তাদের স্বজনরা কি’শোরীর অভিভাবকদের মা’মলা করতে বা’ধা দেয় এবং আপোষে মিমাংসা করার জন্য নানাভাবে চেষ্টা করতে থাকে। মঙ্গলবার মেয়েটি গু’রুতর অ’সুস্থ হয়ে পড়ায় তাকে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বি’ষয়টি আপোষে মিমাংসা করার জন্য একাধিক বৈঠক হওয়ায় গ্রামবাসী এবং পুলিশ ঘটনা জানতে পারে। পরে থানার ওসি মো. নাজির আলমের নেতৃত্বে একদল পুলিশ মঙ্গলবার বিকেলে ঘটনাস্থলে গিয়ে অ’ভিযুক্ত বিল্লাল হোসেনকে গ্রে’ফতার করে।

কোর্ট ইন্সপেক্টর সেলিম নেওয়াজ জানান, আ’দালত ধ”ণের শি’কার কি’শোরীর জ’বানব’ন্দি নিয়েছেন। গ্রে’ফতার বিল্লালকে জে’লহাজতে পাঠানো হয়েছে। তার রি’মান্ড শুনানির জন্য আগামীকাল বৃহস্পতিবার দিন ধার্য করেছেন আ’দালত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here