লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ক্যানসারে আ’ক্রান্ত এক না’রীকে র”ক্ত দিচ্ছেন স্বেচ্ছাসেবক আসলাম। আর সেই র”ক্তের ব্যাগ হাতের বদলে পা দিয়ে দোলাচ্ছেন সিনিয়র মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট জাহেদুল ইসলাম- এমন একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

এ ঘ’টনায় সাধারণ মানুষের মধ্যে বি’রূ’প প্র’তিক্রি’য়া দেখা দিয়েছে। নেটিজেনদের অনেকে সমালোচনাও করছেন। বলছেন, একজন সিনিয়র স্বাস্থ্যকর্মীর এ ধরনের আচরণ মা’নবিক ও শো’ভ’নীয় মনে হচ্ছে না।

এতে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সভাপতি শাওন খান, সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাব্বি, তাপস অধিকারী।

বক্তারা দাবি করে বলেন, র”ক্তের ব্যাগে পা দেওয়ার ঘ’টনায় জাহেদুল ইসলামকে দৃ’ষ্টা’ন্তমূ’লক শা”স্তির ব্যবস্থা করতে হবে। যাতে ভবি’ষ্যতে এ রকম কাজ করার সা’হ’স আর কেউ না পায়।

তারা বলেন, মেডিকেল টেকনোলজিস্ট জাহেদুল শহরে একটি প্যাথলজির মালিক। তার ইসলাম প্যাথলজিতে না গেলেই তিনি রো’গীদের স’ঙ্গে খা’রাপ আচরণ করেন। অনেকের অ’ভিযো’গ তিনি প্রায়ই সদর হাসপাতালে রো’গীদের স’ঙ্গে দু’র্ব্যব’হার করেন।

সদর হাসপাতালের ওই ক্যা’ন’সার আ’ক্রান্ত না’রী আপনপাড়া এলাকার শিরিন বেগম। তার ছেলে সাদিকের প্রায়ই মায়ের জন্য র”ক্ত সংগ্রহ করতে হয়।

সমকালকে সাদিক বলেন, মায়ের জন্য ‘ও’ নেগেটিভ র”ক্তের বিশেষ প্রয়োজন। প্রায়ই আমি র”ক্ত সংগ্রহ করি। মঙ্গলবার সকালে শহরের নবীনগর এলাকার স্বেচ্ছাসেবী আসলাম র”ক্ত দিতে আসেন। সেসময় র”ক্তের ব্যাগটিতে পা দিয়ে দোলাচ্ছিলেন মেডিকেল টেকনোলজিস্ট জাহেদুল ইসলাম।

বি’ষয়টি জানতে জাহেদুল ইসলামের স’ঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চে’ষ্টা করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি। এমনকি খুদে বার্তা দিয়েও কোনো সা’ড়া পাওয়া যায়নি।

লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. সিরাজুল ইসলাম বলেন, র”ক্তের ব্যাগটি এসময় দোলাতে হয়। তিনি হাতের বদলে পা দিয়ে কাজটি করেছেন।

তবে এ রকম অশো’ভন কাজ করার জন্য প্রথমে তাকে মৌখিকভাবে স’তর্ক করা হযেছে। পরে বুধবার তিনদিনের সময় দিয়ে তাকে লিখিতভাবে কারণ দর্শানোর নো’টিশ দেওয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here